ভাবসম্প্রসারণ

যাহা চাই তাহা ভুল করে চাই ,/যাহা পাই তাহা চাই না ।

 যাহা চাই তাহা ভুল করে চাই ,/যাহা পাই তাহা চাই না ।

যাহা চাই তাহা ভুল করে চাই ,/যাহা পাই তাহা চাই না ।


 ভাব সম্প্রসারণ : মানুষের চাহিদা বা আকাঙ্ক্ষা অসীম ।একটি চাহিদা শেষ হওয়াই মাএই আরেকটি নতুন চাহিদা সৃষ্টি হয় ।এই অসীম চাহিদার কারণেই মানুষ কখনো আত্নতৃপ্ত হতে পারে না ।কাঙ্ক্ষিত বস্তু ভাগ্যে জোটে না ,অথচ যা পায় ,তা সে চায় না ।

মানুষের আশা –আকঙ্ক্ষা সীমাহীন ।তার চাওয়া-পাওয়ার কোনো শেষ নেই ।পৃথিবীতে চাওয়া পাওয়া নিয়ে মানুষের রয়েছে নিরন্তর দ্বন্দু ।মানুষ যখন যা চায় ,সেটিই যে তার একমাএ কাম্যবস্তু তা কিছু নয় ।সে যে সত্যিকার অর্থে কী চায় ,কী তার কাম্য সে সম্পর্কে সে সবসময় সঠিক তথ্য দিতে পারে না ।তাই মানুষ তার কাম্যবস্তুর প্রাপ্তির দ্বারা কোনো সময়ই পূর্ণ পরিতৃপ্ত নয় ।একটা অতৃপ্তির বেদনা সারাক্ষণ তার মনের মধ্যে বিরাজ করে ।কারণ ,একবার মানুস যা চায় তা পাওয়া হয়ে গেলে নতুন করে আরো কিছু পাওয়ার আকাঙ্ক্ষা জাগে ।অজানাকে জানার এবং অচেনাকে চেনার প্রতি মানুষের যেমন আগ্রহের শেষ নেই ,তেমনি না পাওয়াকে পাওয়ার জন্য তার উগ্র কামনারও কোনো পূর্ণ পরিতৃপ্ত নেই ।কামনার মোহে আকৃষ্ট ও বশবতী হয়ে মানুষ তার না পাওয়াকে পাওয়ার আশায় অবিরাম প্রচেষ্টা চালিয়ে যায় ।কিন্তু যখন মানুষ তার কাম্যবস্তুকে লাভ করে ,তখনই তার মোহ কেটে যায় । প্রাপ্ত বস্তুকে আর প্রার্থিত বলে মনে হয় না ।পরমুহূর্তেই আবার তার সহজাত প্রবৃতির বশে নতুন করে কোনো প্রাপ্তির আশায় সে হন্যে হয়ে ওঠে ।কামনার পূরনের উদগ্রসাধনায় ভুলের সাগরে নিমজ্জিত হয় ।প্রকৃতপক্ষে ,চাওয়া-পাওয়ার এ জীবন মানুষ যা চায় তা পাওয়ার পর তার কাছে মনে হয় ,সে যেন ভুল করেই ছেয়েছিল এবং যা চাওয়া হয় তা পাওয়ার পরে,তার একইরকম অনুভুতি জাগে ।মূলত মানুষের অসীম চাহিদার কারণেই তার সমস্ত চাহিদা –পাওয়াকে ভুল মনে হয় ।কিন্তু তা ভুল নয়- এটা মানুষেরই সহজাতযোগ্য প্রবৃওি ।চাওয়ায় যেমন তার শেষ নেই ,তেমনি পাওয়ারও শেষ নেই ।তাই ক্যালভিন ওরেনের উক্তিটি স্মরণযোগ্য :‘‘মানবজীবন চিরদিনেই সুখ শান্তিতে কাঠে না ।আকাশের দিকে হাত বাড়ালে শূন্যতা ছাড়া আর কিছু মিলে না ।চাওয়া পাওয়ার গন্ডি তাই মাটির কাছাকাছি হওয়া ভাল ।”

মানবমনের এ পাওয়া না পাওয়ার দ্বন্দ্ব চিরন্তন ।অবিরাম ও অব্যাহত এর গতি ।চাওয়া –পাওয়ার এই অন্তর্দব্ন্দই মানুষকে ভুল পথে ,লোভের পথে ,কদাচিং সঠিক পথে পরিচালিত করে ।তাই মানবজীবনের চাওয়া –পাওয়া সীমিত হওয়াই সঙ্গত ।

 যাহা চাই তাহা ভুল করে চাই ,/যাহা পাই তাহা চাই না ।

মূলভাব : এ জীবনে আমাদের চাওয়ারও শেষ নেই ,পাওয়ারও শেষ নেই ।অনেকে চেয়েও পায় না ,আবার অনেকে না চাইতেই পায় ।

সম্প্রসারিত ভাব : মানবজীবনে চাওয়া –পাওয়া যেমন কেোনো শেষ নেই ,তেমনি নেই উভযের মধ্যে কোনো সামঞ্জস্য ।হৃদয়ের অভ্যন্তর হতে ইচ্ছা হিসেবে মানুষ যা চায় ,তা যেমন বাস্তব পায় না ,তেমনি মানুষ যা পায় ,তাতে সন্তুষ্ট না হয়ে অন্য কিছু পাওয়ার আশা করে ।স্বভাগতভাবে মানুষ নিকটকে তুচ্ছ করে দূরের স্বপ্ন নিমগ্ন হয় ।অতি আশা দুরাশার কারণে আমরা বাস্তব সত্যকে সন্তুষ্টির সঙ্গে বরণ করে নিতে কুন্ঠিত হই এবং অবাস্তব কল্পলগ্নকে চির-অধরার আকাঙ্ক্ষায় প্রতি মুহূর্তে পদদলিত করি ।ফলে সে মরীচিকাসম অপ্রাণীকে যেমন পাই না ,তেমনি করায়ও প্রাপ্তির সুখ থেকেও বঞ্চিত হই ।সহজ সুলভ অগ্রাহ্য করে দুরুহ দূর্লভের কামনা করে মানুষ এমনিভাবে অমরহ অতৃপ্ত ও অশান্ত  জীবনযাপন করেছে ।কিন্তু অদৃষ্টের  এমনি নির্মম পরিহাস সে সহজ প্রাপ্তির সন্তুষ্ট থেকে যেমন আমরা বঞ্চিত হই ,তেমনি অবাস্তব ও দুর্লভকেও লাভ করতে পারি না ।সহজ সুলভ হয়েও ওঠে না ।জীবনের চাওয়া পাওয়া যেন এমনই ।এ চিরন্তন লেনদেনের মাঝেই আমাদের জীবন বয়ে চলছে তার আপন ঠিকানায় ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button