চাকুরীর খবর

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের সর্বশেষ খবর

আসসালামুয়ালাইকুম প্রিয় পাঠক। আশা করি আপনি অনেক ভালো আছেন। আবারো আপনাদের সামনে হাজির হয়ে গেলাম শিক্ষা বিষয়ক একটি টিউটোরিয়াল নিয়ে। আমরা সবাই জানি, দ্বিতীয় ধাপে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল নভেম্বরের ২০২২ সালের প্রথম সপ্তাহে প্রকাশ হবে। 

এটা জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান। এছাড়াও প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের সর্বশেষ কিছু খবর রয়েছে। যেগুলো প্রার্থী হিসেবে আপনার জানা দরকার। তাই আপনি যদি এ বিষয়ে সম্পর্কে সর্বশেষ তথ্য জানতে চান। তাহলে আজকের আর্টিকেল মনোযোগ সহকারে পড়বেন। 

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ফলাফল ২০২২

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় ধাপের মৌখিক পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর চলতি বছরের নভেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে রেজাল্ট প্রকাশের প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।অক্টোবর মাসেও চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা সম্ভব হবে না। কিন্তু নভেম্বর মাসের ১ম সপ্তাহের মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হবে। 

সারা দেশে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের মৌখিক ও লিখিত পরীক্ষা অনেক আগেই সম্পন্ন করা হয়েছে । তাই সকল ধাপের পরিক্ষার রেজাল্ট একসঙ্গে প্রকাশিত হবে। তবে এখনো বেশ কয়েকটি জেলায় মৌখিক পরীক্ষা চলমান আছে। সেপ্টেম্বর মাসের ১৫ তারিখ পর্যন্ত পরীক্ষা চলমান থাকবে। সেপ্টেম্বর মাসের শেষের দিকে চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করা হবে। 

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৯ অনুযায়ী স্বচ্ছতা ও নিরপেক্ষতার সঙ্গে নিয়োগপ্রক্রিয়া সম্পন্ন হচ্ছে। অর্থাৎ চূড়ান্ত ফলাফল উপজেলা শিক্ষা থানায় প্রকাশিত করা হবে। যার মাধ্যমে দালাল চক্র চাকরি দেওয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিতে পারবে না। 

এছাড়াও প্রয়োজনীয় সব কার্যক্রম সফটওয়্যারের মাধ্যমে করা হচ্ছে। দালাল চক্রের সঙ্গে অর্থ লেনদেন না করার জন্য সবাইকে আহ্বান জানিয়েছেন অধিদপ্তর কর্তৃপক্ষ। মূলত মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতেই এবার সবার চাকরি হবে। কোন ব্যক্তি যদি অর্থের বিনিময়ে চাকরি দেওয়ায় জন্য সমঝোতা করে, তাহলে অবশ্যই আপনি পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা নিবেন। 

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার রেজাল্ট ২০২২ দেখার নিয়ম

বর্তমান সময় তথ্য প্রযুক্তির যুগে আপনি ঘরে বসে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার রেজাল্ট দেখতে পারবেন। এই পদ্ধতির মাধ্যমে আপনি সম্পূর্ণ দালাল চক্র থেকে বিরত থাকতে পারবেন। কারণ আপনি নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন কিনা তা খুব সহজে অনলাইনের মাধ্যমে দেখতে পারবেন। তাহলে অবশ্য অবশ্যই আপনাকে প্রাথমিক নিয়োগ পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম সম্পর্কে জানতে হবে। পরীক্ষার রেজাল্ট দেখার নিয়ম যদি আপনার জানা থাকে। তাহলে যেকোনো সময় যেকোনো মুহূর্তে আপনার রেজাল্ট বের করতে পারবেন। চলুন বিস্তারিত দেখেন।

এবছরের প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল যেহেতু নভেম্বর মাসের শেষের দিকে প্রকাশিত হবে। এ কারণে আপনাকে রেজাল্ট দেখার নিয়ম আগে থেকে জেনে নিতে হবে। মূলত প্রাইমারি সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল dpe.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়ে থাকে। সুতরাং এই ওয়েবসাইট ব্যবহার করে আপনি খুব সহজে ফলাফল দেখতে পারবেন। 

সবার আগে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় আপনার ফলাফল দেখার জন্য dpe.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। তারপর আপনার রোল নাম্বার দিয়ে সাবমিন বাটনে ক্লিক করতে হবে। এখন আপনি যদি লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন। তাহলে আপনার কত তারিখে লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে তা জানিয়ে দেয়া হবে। তাই যারা লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তারা মৈত্রী পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করে। এছাড়াও যারা লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়নি তারা পরবর্তীতে আবার নিয়োগ পরীক্ষার জন্য পড়াশোনা করতে পারেন। 

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ফলাফল ২০২২

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় চূড়ান্ত প্রার্থীদের চাকরিতে যোগদান

নভেম্বর মাসের শেষের দিকে ফলাফল প্রকাশের পর চলতি বছরেই নির্বাচিত সকল প্রার্থীদের চাকরিতে যোগদানের কার্যক্রম সম্পন্ন করার হবে। এরকম তথ্য জানিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এবারের নিয়োগ কার্যক্রমে বাংলাদেশ সর্বমোট মোট ৪৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ পাবেন।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ২০২২ কতজন চাকরি পাবে

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ৩ ধাপে মোট ১,৫১,৮২৫ জন উত্তীর্ণ হয়েছে। ভাইভা পরীক্ষার মাধ্যমে চূড়ান্তভাবে মোট নির্বাচন ৪৫,০০০ জনের চাকরি হবে। তবে গড়ে ৩.৩৭ / ৪ জনের মধ্যে ১ জনের চাকরি হবে। তবে পরবর্তী পদ সংখ্যা বেড়ে ৫০,০০০ হতে পারে। তাই গড় অনুসরণ করে ৩ জনের মধ্যে ১ জনের চাকরি হবে। 

মৌখিক পরীক্ষার জন্য কিছু নির্দেশনা

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় এ বছর প্রায় ৪৫ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় ধাপের মৌখিক পরীক্ষা এবছরের ২০ সেপ্টেম্বরে শেষ হবে। লিখিত পরীক্ষায় যেসব প্রার্থীরা পাশ করেছে মূলত তারাই মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। মৌখিক পরীক্ষায় যে সকল প্রার্থীরা অংশগ্রহণ করবে, তাদের অনলাইনে প্রয়োজনীয় কিছু কাগজপত্র জমা দিতে হবে। 

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সমূহের মধ্যে আবেদনের কপি, লিখিত পরীক্ষার প্রবেশপত্র, ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা কর্তৃক চারিত্রিক সনদপত্র,জাতীয় পরিচয়পত্র, শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র কমপক্ষে ৯ম গ্রেডের গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক সত্যায়িত করে স্ব স্ব জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে আবশ্যিকভাবে জমা দিয়ে প্রাপ্তি স্বীকারপত্র সংগ্রহ করতে হবে।

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে সব সনদ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ফটোকপি জমা প্রদানের সময় ওইসব কাগজপত্রের মূল কপি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে প্রদর্শন করতে হবে। মৌখিক পরীক্ষার জন্য নির্বাচিত প্রার্থীদের কাগজপত্র জমা দিতে ব্যর্থ হলে তাদের মৌখিক পরীক্ষার কার্ড দেওয়া হবে না। অর্থাৎ আপনার কোন একটি কাগজপত্র যদি ভুল হয় অথবা কাগজপত্রে যদি জমা না দেন,তাহলে মৌখিক পরীক্ষা দিতে পারবেন না। 

এই কারণে আপনি যদি লিখিত পরীক্ষায় চূড়ান্ত ফলাফল অর্জন করেন। তাহলে উপরোক্ত কাগজপত্র গুলো নিয়ে জেলা শিক্ষা অফিসের যোগাযোগ করতে হবে। তারপর মৌখিক পরীক্ষার সময় এসব কাগজপত্রের মূল কপি সঙ্গে আনতে হবে। মৌখিক পরীক্ষার তারিখ প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।

উপসংহার

এই ছিল আমাদের প্রাথমিক নিয়োগ পরীক্ষার সর্বশেষ খবর নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা। আশা করি আজকের আর্টিকেলের মাধ্যমে যে সকল প্রার্থীরা নিয়োগ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে তারা সঠিক তথ্য পেয়েছে। এছাড়াও এ বিষয়ে যদি কোন প্রশ্ন থাকে কমেন্ট করুন। এরকম আরো বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার সর্বশেষ আপডেট জানার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটের ভিজিট করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button