ব্যকরণ

দশের লাঠি একের বোঝা ভাবসম্প্রসারণ/সবে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ

দশের লাঠি একের বোঝা ভাবসম্প্রসারণ

দশের লাঠি একের বোঝা ভাবসম্প্রসারণ/সবে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ
দশের লাঠি একের বোঝা ভাবসম্প্রসারণ
মূলভাব: যা একজনের পক্ষে করা কষ্টকর তা অনেকের পক্ষে একবারে সহজ।
সম্প্রসারিত ভাব: যে কোনো কাজ যদি সমবেত প্রচেষ্টার দ্বারা করা হয় তাহলে কাজটি দ্রুত ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হতে পারে। ছোট ছোট কাজ মানুষ একা করতে পারে, কোনো অসুবিধা হয় না। কিন্তু বড় বড় কাজ কখনো একজনের শক্তি ও পরিশ্রমে সম্পন্ন করা সম্ভব হয় না। একা করতে গেলে বহু সময় লেগে যায় । তাতে কাজ সর্বাঙ্গীনভাবে সুষ্ঠু ও সুন্দর হয় না এবং যে যে উদ্দেশ্য কাজটা শুরু করা হয়েছির তা সাধিত হয় না। এসব বড় বড় কয়েকজন একত্রিত হয়ে করলে সহজে ও অল্প সময়ে সুসম্পন্ন করহে পারে। এতে কাজটি যেমন সঠিক সময়ে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়, অপরদিকে তেমনি কাজের উদ্দেশ্যও পুরোপুরিভাবে সাধিত হয়। তাই পৃথিবীতে একতাই বর। দশজনের সম্মিলিত চেষ্টার কাছে কোনে কঠিন কাজই অসম্পন্ন থাকে না। একার চেষ্টার কাছে কাজটা খুব কঠিন বলে মনে হলেও দশজনের সম্মিলিত চেষ্টার কাছে কোনো কঠিন কাজই অসম্পন্ন থাকে না। একার চেষ্টার কাছে কাজটা খুব কঠিন বলে মনে হলেও দশজনের সম্মিলিত চেষ্টার কাছে কোনো সে কাজ মোটেই দুরুহ নয়। কাচেই একার চেষ্টা যেখানে সামান্য ও নগণ্য, দশজনের সম্মিলিত চেষ্টা সেখানে খুবই শক্তিশালী ভূমিকা পালন করে। এজন্যে কোনো জাজ সমবেতভাবে করা উচিত।
দশের লাঠি একের বোঝা ভাবসম্প্রসারণ/সবে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ
সবে মিলে করি কাজ হারি জিতি নাহি লাজ
পৃথিবীর ছোট বড় যেকোনো কাজে সম্মিলিত অংশগ্রহণের মধ্যেই সর্বোত্তম সফলতা নিহিত। সম্মিলিত প্রচেষ্টায়র মাঝে আছে বিপুল উৎসাহ, বিজয়ের দুর্দমনীয় নেশা আ অফুরন্ত উদ্দীপনা। ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে সফলতার সম্ভাবনাই থাকে বেশি। অন্তত পরাজিত হওয়ার আগে পরাজয়ের নেতিবাচক মানসিকতা স্থান পায় না মিলিত শক্তিতে। সবাই মিলেমিশে কজা করতে ‍গিয়ে পরস্পরের মাঝে তৈরি হয় একতা, সম্প্রীতি ও ভালোবাসা। সভ্যতার শুরু থেকেই মানুষ নিজেদের প্রয়োজনে ঐক্যদ্ধ হয়েছে। এক সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে সৃষ্ট সম্প্রীতি আর ভ্রাতৃত্ববোধের বনধনে আবদ্ধ হয়ে তৈরি করেছে সমাজ ও রাষ্টের মতো ঐক্যবদ্ধ শক্তিশালী সংগঠন। ঐক্যব্ধ মানুষের কাছেতুচ্ছ হয়ে যায় অস্ত্রের ক্ষমতা। একক ভ্যক্তিসত্তা একতাবদ্ধ হয়ে পৃথিবীর যেকোনো পরাক্রমশালী শক্তিকে হারিয়েুদতে পারে । আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ যার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। আধুনিক সমরাস্ত্রে সুসজ্জিত বিশাল পাক হানাদার বহিনীকে হারিয়ে দিয়েছিলেন ঐক্যমন্ত্রে দীক্ষিত আমাদের বীর মুক্তিযোদ্ধারা। আর সমবেতভাবে কাজ করার মাঝে হা-জিত মুখ্য বিষয় নয় । সমবেতকাজ জয় পরাজয়কে ছাপিয়ে মহত্তম হয়ে ওঠে ম্মিলনের সৌনএর্য। তাছাড়া সমবেত কাজে বিজয়ের আন্দ যেমন সকলে তেমনি ব্যর্থতার দায়ভারও গ্লানিও সকলের। একক কাজেরক্ষেত্রেরপরজয়ের গ্লানিও একাকী নিজেকে বহনকরতে হয় । সম্মিলিত কাজ ব্যর্থতার গ্লানিও সমভাবে সবার ওপরে বর্তায় বলে গ্লানিবোধ তীব্র হয় না।
মন্তব্য: সকলের সম্মিলিত অংশগ্রণে কাজরে সফলতা ব্যর্থতা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়। মিলেমিশে কাজ করে ব্যর্থ হলেও লজ্জা কিংবা অগৌরবনেই।
দশের লাঠি একের বোঝা ভাবসম্প্রসারণ
ভাবসম্প্রসারণ:একার পক্ষে যে কাজ অনেক কঠিন, অনেক লোকের পক্ষে সে কাজ খুব সহজ। সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য কোনো কাজ অনেকের মধ্যে ভাগাভাগি করে নিতে হয়।/br> একজন লোকের হাতে একটি লাঠি থাকলে তা সহজেই বহনযোগ্য। কিনইু দশজনের লাঠি যদি একজনের হাতে দেওয়া হয় তবে তা তার জ্যে একটা বোঝা হয়ে উঠে। একজনের জন্য যা বোাঝা দশজনের জন্য তা কোনো সমস্যাই নয়। মানবজীবনে কাজরে বেলায়ও সত্য এ সত্য অনুভব করা যায় । প্রতিটি মানুষের কাজ করার একটা ক্ষমতা আছে। এ ক্ষমতার একটা সীমাও আছে। সীমার বাইরে কাজ করা তার দ্বারা সম্ভব হয় না। অনেকের কাজ তাই একজনের উপর চাপিয়ে দিলে তার দ্বারা তো করা সহজ নয়, মম্ভবও না। কোনো বড় কাজে যদি বহু লোক মিলে হাত লাগায় তবে তা সহজে সমাধা হয় । সমবেতভাবে কাজ করতে পালে একজনের ‍গুরুদায়িত্ব অনেক কমে যায় এবং সকলে তা ভাগাভাগি করে নিতে পারে। বহলোকের হাতে পড়ে যে কাজ সহজ হয়ে যায় তা একজনের জন্য হয়ে পড়ে সীমাহীন বাধা। তখন একার পক্ষে তা করা সম্ভব নয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button