শিক্ষা

দশমিক ভগ্নাংশ কাকে বলে? | dosomik vognagnso kake bole | sngidhasokal.com

দশমিক ভগ্নাংশ কাকে বলে? : শুরুতেই শিরোনাম দেখেই বুঝতেই পারছো আজকে কোন বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। আজকে আমি এই পোস্টে আলোচনা করব দশমিক ভগ্নাংশ কাকে বলে? দশমিক সংখ্যা ধারণা প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।

এই পোস্ট শেষে আপনি যা যা শিখতে পারবেনঃ

  • দশমিক খ্যখ্যা ব্যাখ্যা করতে পারবেন।
  • পূর্ণসংখ্যা, ১০ এবং ১০০ দ্বারা দশমিক সংখ্যাকে গুণ করতে পারবে।
  • পূর্ণসংখ্যা, দুই অঙ্কের সংখ্যা, ১০ এবং ১০০ দ্বারা দশমিক সংখ্যাকে ভাগ করতে পারবে।
  • দশমিক সংখ্যা দ্বারা গুণ ও ভাগ করতে পারবে।
  • দশমিক সংখ্যার গুণ ও ভাগ সম্পর্কিত বাস্তব সমস্যা সমাধান করতে পারবে।
আরো পড়ুনঃ ভাজ্য কাকে বলে?

দশমিক ভগ্নাংশের পরিচিতি/ দশমিক ভগ্নাংশ কাকে বলে?

দশমিক ভগ্নাংম এমন সংখ্যা যাতে দশমিক বিন্দু থাকে। এই বিন্দুর আগের অংশ পূর্ণসংখ্যা এবং পরের অংশ ভগ্নাংশ । দশমিক বিন্দু থেকে বামদিকের অঙ্কগুলোর স্থানীয় মন পর্যায়ক্রমে একক, দশক , শতক ইত্যাদি। এবং ডানদিকের অঙ্গু েলার স্থানীয় মান পর্যায়ক্রমে দশমাংশ, শতাংশত, সহস্রাংশ ইত্যাদি। দশমিক ভগ্নাংশকে পূর্ণসংখ্যা বা দশমিক ভগ্নাংশ দ্বারা এবং পূর্ণসংখ্যাকে দশমিক ভগ্নাংশ দ্বারা গুণ  ও ভাগ করা যায়। এক্ষেত্রে ধারাবহিক পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়। এসব গুণ ও ভাগ প্রক্রিয়াকে দশমাংশ, শতাংশ, সহস্রাংশ ইত্যাদির আলোকেব্যাখ্যা করা যায়। তবে কোনো দশমিক ভগ্নাংশকে ১০, ১০০ ,১০০০ ইত্রাদি দ্বারা গুণের ক্ষেত্রে কেবল দশতিক বিন্দু যথা্ক্রমে ১,২ ,৩  ইত্যাদি সংখ্রকঘরেডানে সরাতে হয়। আবার, কোনো দশমিক ভগ্নাংশকে ১০,১০০,১০০০ ইত্যাদি দ্বারা ভাগের ক্ষেত্রে কেবল দশমিক বিন্দু  যথাক্রমে ১,২,৩, ইত্যাদি সংখ্যক ঘর বামে সরাতে হয়।
আরো পড়ুনঃ ভাগ কাকে বলে?

দশমিক সংখ্যার ধারণাঃ

৪২.১৯৫ সংখ্যাটি একটি দশমিক ভগ্নাংশ যার দশমাংশ, শতাংশ এবং সহস্রাংশ রয়েছে তা নিচে দেখানো হলো:
দশমিক সংখ্যার ধারণাঃ

 

আরো পড়ুনঃ গুণ কাকে বলে? 

১কে ১০ দ্বারা গুণ করলে এবং ১কে ১০ দ্বারা ভাগ করলে নিচের সংখ্যাগুলো পাওয়া যায়।
দশমিক সংখ্যার ধারণাঃ

উপরের চিত্রটিতে মূলত বোঝানো হয়েছে ১০০ কে ১০ দিয়ে ভাগ করলে ১০ হবে এবং ১০ কে আবার ১০ দিয়ে গুণ করলে ১০০ হবে। আবার দ্বিতীয়টিতে ১০ কে ১০ দ্বারা ভাগ করলে ১ হবে এবং ১ কে ১০ দ্বারা গুণ করলে ১০ হবে। তৃতীয়টিতে ১ কে ১০ দ্বারা ভাগ করলে ০.১ হবে এবং ০.১ কে ১০ দ্বারা গুণ করলে ১ হবে। চতুর্থটিতে ০.১কে ১০ দ্বারা ভাগ করলে ০.০১ হবে এবং ০.০১ কে ১০ দ্বারা গুণ করলে ০.১ হবে। সর্বশেষে ০.০১ কে ১০ দ্বারা ভাগ করলে ০.০০১ হবে এবং  ০.০০১ কে ১০ দ্বারা গুণ করলে ০.০১ হবে।

পূর্ণ সংখ্যা দ্বারা গুণঃ

দশমিক সংখ্যাকে পূর্ণসংখ্যা দ্বারা গুণ করার জন্য প্রথমে দশমিক বিন্দু বিবেচনা না করে গুণ করতে হবে। এভাবে প্রাপ্ত সংখ্যার ািনদিকে থেকে তত সংখ্যক অঙ্কের পরে দশমিক বিন্দু বসাতে হবে যত সংখ্যাক অঙ্ক গুণ্যে দশমিক বিন্দুর পরে থাকে । তাহলেই নির্ণেয় গুণফল পাওয়া যাবে।

১০ এবং ১০০ দ্বারা গুণঃ

দশমিক সংখ্যাকে ১০ এবং ১০০ দ্বারা গুণ করলে দশমিক বিন্দু যথাক্রমে ১ ও ২ ঘর ডানে সরে যায়।

পূর্ণসংখ্যা দ্বারা গুণঃ

দশমিক সংখ্যাকে পূল্ণ সংখ্যা দ্বারা ভাগ করার জন্য প্রথমে দমমিক বিন্দু ববেচনা না করে ভাগ করতে হবে। ারপর দশমিক বিন্দুর অবস্থান অনুসারে দশমাংশ, শতাংশ,  ইত্যাদি বিবেচনা করে ভাগফলের দশমিক বিন্দু  বসাতে হবে।

১০ কে ১০০ দ্বারা ভাগঃ

দশমিক  সংখ্যাকে ১০  এবং ১০০ দ্বারা ভাগ করলে দশমিক বিন্দু যথাক্রমে ১ ও ২ ঘর বমে সরে যায়।

দশমিক সংখ্যা দিয়ে গুণঃ

দশমিক সংখ্যা দিয়ে গুণ করার জন্য প্রথম দশমিক বিন্দু বিবেচনা  না করে গুঃণ করতে হবে। ারপর গুণকে দশমিক নিউদর অব্থান অনুসারে ১০, ১০০ ইত্যাদি দ্বারা ভাগ করে গুণফলে  দশমিক বিন্দুর অবস্থান নির্ধারণ করতে হবে।

দশমিক সংখ্যা দিয়ে ভাগঃ

দশমিক সংখ্যঅ দিয়ে ভাগ করার জন্য প্রথমে গুণকে দশমিক বিন্দুর অবস্থান অনুসারে গুণ্যকে১০, ১০০ ইত্যাদি দ্বারা গুণ করতে হবে। তারপর গূণকের দশমিক বিন্দু বিবেচনা না করে এটি দ্বারা উক্ত গুণফলকে ভাগ করলেই নির্ণেয় ভাগফল পাওয়অ যাবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button