প্রবন্ধ রচনা

জাতি গঠনে ছাত্রছাত্রীদের ভূমিকা রচনা অথবা, দেশ গঠনে ছাত্রসমাজের ভূমিকা রচনা

                         জাতি গঠনে ছাত্রছাত্রীদের ভূমিকা

অথবা, দেশ গঠনে ছাত্রসমাজের ভূমিকা

জাতি গঠনে ছাত্রছাত্রীদের ভূমিকা রচনা অথবা, দেশ গঠনে ছাত্রসমাজের ভূমিকা রচনা


ভূমিকা: একজন ছাত্র মানে একজন নাগরিক, একজন দেশপ্রেমিক ও দেশের ভবিষ্যৎ কর্ণধার। এ জন্যই দেশ ও জাতি গঠনে ছাত্রসমাজের ভূমিকা অপরিহার্য।

ছাত্রসমাজের মূল লক্ষ দেশ ও জাতি গঠন: প্রত্যেক ছাত্রেরই জীবনের লক্ষ্য থাকে ডাক্তার, ইজ্ঞিয়ার, সাহিত্যিক প্রভৃতির মতো বড় হওয়ার। তারা পরবর্তীতে লক্ষে পৌছে দেশ ও জাতি গঠনে করে থাকে। তাই ছাত্রজীবন থেকেই দেশ ও জাতি গঠনে ছাত্রসমাজের মূল লক্ষ্য হিসেবে নির্ধারণ করলে বিশ্বের বুকে দেশ উন্নত হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারবে।

ইসলামি মূল্যবোধ সৃষ্টিতে: ছাত্রসমাজ ইসলামী জ্ঞানচর্চা ও সাধারণ জনগণের মাঝে তা প্র্রচার করে ইসলামী মূল্যবোধ সৃষ্টিতে সাহায্য করতে পারে।

শিক্ষা বিস্তারে: নিরক্ষরতার অভিশাপ থেকে দেশের মানুষকে মুক্ত করার মহান দায়িত্ব ছাত্রদের। নিরক্ষর বয়স্ক লোকদের এবং বালক-বালিকাদের জন্য গ্রামে ও শহরের মহল্লায় জনগণের সহায়তায় নৈশ বিদ্যালয় স্থাপন করে উচ্চ শিক্ষিত ছাত্রছাত্রী দ্বারা বিনা পরিশ্রমিকে শিক্ষা দান করলে দেশের নিরক্ষরতা দূর করা যায়।

পল্লী উন্নয়নে:পল্লী উন্নয়নে ছাত্রসমাজ বিশেষ দায়িত্ব পালন করতে পারে। ছুটিতে বা অবসর সময়ে তারা অশিক্ষিত কৃষকদেরকে কৃষিজ্ঞান প্রদান, স্বাস্থ্য ও অধিকার সচেতনতা ও শিক্ষা বিস্তারের মাধ্যমে পল্লী উন্নয়ন-এর মাধ্যমে দেশ গঠন করতে পারে।

ঐক্য ও সম্প্রীতি স্থাপনে: ছাত্রসমাজকে সকল প্রকার সংকীর্ণতা পরিহার করে পারস্পরিক প্রীতি ও ঐক্য বজায় রাখতে হবে। ছাত্র সংগঠন ও সমিতি স্থাপনের মাধ্যমে জনগণের মধ্যে ঐক্য ও সংহতির ভাব গড়ে তুলতে ছাত্রদের সম্মিলিত প্রয়াস একান্ত প্রয়োজন। এতে দেশ ও জাতি শক্তিশালী হবে।

শিল্প ও সংস্কৃতির উন্নতি বিধানে: ছাত্ররা পত্রপত্রিকা, প্রচার, সভা-সমিতি ও অন্যান্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে দেশের শিল্প ও সংস্কৃতিকে জাগিয়ে তুলতে পারে।

দেশ সেবায়:দেশের দুরবস্থায় ছাত্রসমাজের অনেক দায়িত্ব কর্তব্য রয়েছে। বন্যা, মহামারী ও দুর্ভিক্ষের সময় দেশের নিপীড়িত মানুষের সেবায় তাদের আত্মনিয়োগ করতে হবে।

জনগণকে দেশপ্রেমে উদ্রুদ্ধকরণ: দেশ গঠনে ছাত্রসমাজের প্রথম ও প্রধান কর্তব্য হলো দেশবাসীকে দেশপ্রেমে ও স্বার্থত্যাগে উদ্বুদ্ধ করা। তারা দেশের সার্বিক অবস্থা সম্পর্কে দেশবাসীকে সম্যক ধারণা দিয়ে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করতে পারে।

দেশ রক্ষায় : এ দেশের ছাত্রসমাজ মানে একটা নতুন দেশ ও নতুন জাতির জনমত। ইংরেজ বিতারন থেকে শুরূ করে ’৫২-এর ভাষা আন্দোলন ও সর্বশেষ ’৭১-এর স্বাধীনতা সংগ্রামে ছাত্রসমাজের বুকের রক্ত দান, দেশ রক্ষায় তাদের ভূমিকাকে স্মরণ করিয়ে। তাই । অতীতের মতো বর্তমানে দেশজাতিকে রক্ষায় ছাত্রসমাজকে এগিয়ে আসতে হবে।

উপসংহার:এ দেশের দুরন্ত সৈনিক বীর ছাত্ররা হলো স্বাধীনতার উজ্জ্বল প্রতীক । ছাত্রসমাজ দেশ ও জাতির প্রতি তাদের কর্তব্য পালন করলে অচিরেই আমাদের দেশ উন্নতির উচ্চ শিখরে আরোহণ করতে সক্ষম হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button